,

শিরোনাম :
লক্ষ্মীপুরে আন্তর্জাতিক মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ দিবস পালিত লক্ষ্মীপুরে দোকান দখলের চেষ্টা, ভাংচুর লক্ষ্মীপুরে খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও সুস্থতার জন্য দোয়া অনুষ্ঠিত  লক্ষ্মীপুরে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ফসলি-জমি লক্ষ্মীপুরে হত্যা মামলার আসামীর মোটরসাইকেল শোডাউন লক্ষ্মীপুর ব্যবসায়ীর উপর হামলার অভিযোগ অনুমতিহীন কোরবানি হাটে অবৈধভাবে আদায় হচ্ছে লাখ-লাখ টাকা! লক্ষ্মীপুরে গরু-মহিষ চোরদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় হত্যার উদ্দেশ্যে এসে হামলা, লুটপাট লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ লক্ষ্মীপুরে দোকান ঘর বিক্রির নামে প্রতারনা
Exif_JPEG_420

লক্ষ্মীপুরে প্রবাসীর বাড়ি নির্মানে হয়রানি, প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুরে প্রতিপক্ষের বাধা থমকে আছে প্রবাসীর বসতঘর নির্মান কাজ। বাড়ির ছাদ ডালাই ৫০ভাগ সম্পূর্ন হলেও বাকি কাজ করতে পারছেন না। এতে করে প্রায় ১০লাখ টাকা ক্ষতি হবে বলে জানান ভুক্তভোগী প্রবাসী মো: তানভির হোসেন। ঘটনাটি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ৪নং চর রুহিতা ইউনিয়নের চর লামচি গ্রামের মুনসুর আলী রাজ বাড়িতে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, চর লামচি গ্রামের আলি হায়দারের ছেলে মো: তানভির হোসেন তার পৈত্রিক পুরাতন বসত বাড়িতে প্রায় আড়াই বছর আগে একটি পাকা বসতঘর নির্মান কাজ শুরু করেন। কিন্তু আর্থিক সংকটের কারনে পুরো কাজ শেষ করতে পারেন নি তিনি। তাই মঙ্গলবার (১৬ মে) তানভীর ঐ বসতঘরের ছাদ ডালাই শুরু করেন। ছাদের ৫০ভাগ ডালাই শেষ হলে দুপুরে লক্ষ্মীপুর সদর থানার এএসআই আব্দুল কাইয়ুম আদালতের একটি নোটিশ নিয়ে কাজ বন্ধ রাখতে বলেন। এতে করে কাজ বন্ধ থাকলেও ঐ জমি নিয়ে কি সমস্যা তা জানেন না ভুক্তভোগী তানভীর।
তানভীর হোসেন বলেন, সদর থানা থেকে পুলিশ এসে আমাকে একটি নোটিশ দিয়ে বলেছেন কাজ বন্ধ রাখতে। আদালত নাকি এ কাজের উপর ১৪৪ধারা জারি করেছে। তাই আমার ছাদ ডালাই ৫০ভাগ হলেও বাকি কাজ করতে পারছি না। এতে ছাদ ডেমেজ সহ নির্মান সামগ্রীয় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমি বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন।
অভিযোগকারী জাহেদা বলেন, তারা কোথায় কাজ করছে তা আমাদের জানা নেই। তবে তানভীরের বাবা আমাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছে তাই আমরাও তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি।
লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোছলেহ উদ্দিন বলেন, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা কাজ বন্ধ রাখতে বলেছি। আদালত যদি আবার কাজ করতে নির্দেশনা দেয় তখন তারা আবার কাজ করতে পারবে।

     এই বিভাগের আরও সংবাদ